Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

১।   থানা জনগণের সেবা প্রদানকারী একটি প্রতিষ্ঠান

২। জাতি,ধর্ম,বর্ণ ও রাজনৈতিক/ সামাজিক/অর্থনৈতিক শ্রেণী নির্বিশেষে সকল নাগরিকের সমান আইনগত অধিকার প্রদান

৩। থানায় আগত সাহায্য প্রার্থীদের আগে আসা ব্যক্তিকে আগে সেবা প্রদান করা

৪। থানায় সাহায্য প্রার্থী সকল ব্যক্তিকে থানা পুলিশ সম্মান প্রদর্শন এবং সম্মান সুচক সম্বোধন করা

৫।থানায়জিডি করতে আসা ব্যক্তির আবেদনকৃত বিষয়ে ডিউটি অফিসার সর্বত্নকসহযোগিতাপ্রদান  করা এবং আদনের ২য় কপিতে জিডি নম্বর,তারিখ এবং সংশিস্নষ্টঅফিসারেরস্বাক্ষর ও সীলমোহর সহ তা আবেদনকারীকে প্রদান করা এবং বর্ণিত জিডিসংক্রান্তবিষয়ে যথাশীঘ্র সম্ভব ব্যবস্থা গ্রহণ এবং গৃহীত ব্যবস্থাপুনরায়আবেদনকারীকে অবহিত করা।

৬। থানায় মামলা করতে আসাব্যক্তিরমৌখিক/লিখিত বক্তব্য অফিসার ইনচার্জ কর্তৃক এজাহার ভুক্ত করা এবংআগতব্যক্তিকে মামলার নম্বর, তারিখও ধারা  সহ তদন্তকারী অফিসারের নাম ওপদবীঅবহিত করবে। তদন্তকারী অফিসার এজাহারকারীর সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করাকরেতাকে তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে অবহিত করবে এবং তদন্ত সমাপ্ত হলে তাকেফলাফললিখিত ভাবে  জানিয়ে দিবে।

৭। আহত ভিকটিমকে থানা হতে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করা এবং এ বিষয়ে থানা সকল মেডিকেল সার্টিফিকেট সংগ্রহ করা।

৮।শিশু/কিশোর অপরাধী সংক্রামত্ম বিষয়ে শিশু আইন, ১৯৭৪ এর বিধান অনুসরণ করাএবংতারা যাতে কোন ভাবেই বয়স্ক অপরাধীর সংস্পর্শ না আসতে পারে তা নিশ্চিতকরা। এজন্য দেশের সকল থানায় পর্যায়ক্রমে কিশোর হাজত খানার ব্যবস্থা করাহচ্ছে।

৯। মহিলা আসামী/ভিকটিমকে যথাসম্ভব মহিলা পুলিশের মাধ্যমে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

১০।পাসপোর্টভেরিফিকেশন/আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স ইত্যাদি বিষয়ে  সকলঅনুসন্ধানপ্রাপ্তির ০৩ (তিন) দিনের মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করে থানা হতেসংশিস্নষ্টইউনিটে প্রতিবেদন প্রেরণ করা।

১১। থানা পুলিশ সদস্যগণ কমিউনিটির সাথে নিরবছিন্ন ভাবে যোগাযোগ রক্ষা করা।

১২। অপরাধ দমন মূলক /জনসংযোগমূলক সভার মাধ্যমে সামাজিক সমস্যা এবং আইনগত সমাধান করা

১৩। বিদেশে চাকুরী/ উচ্চ শিক্ষার জন্য গমনেচ্ছু প্রার্থীদের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রদান

১৪।ব্যাংকহইতে কোন প্রতিষ্ঠান অধিক পরিমান টাকা উত্তোলন করলে উক্ত টাকানিরাপদেনেওয়ার জন্য চাহিদা অনুযায়ী পুলিশ এস্কটের ব্যবস্থা করা

১৫। যানবহন নিয়ন্ত্রনে ট্রাফিক সুবিধা প্রদান করা।

 


সিটিজেন চার্টার বাংলাদেশ পুলিশ

 

১। বাংলাদেশ পুলিশ জনগনের সেবা প্রদানকারী একটি প্রতিষ্ঠান

২। জাতি ধর্ম,বর্ণ ও রাজনৈতিক/সামাজিক/অর্থনৈতিক শ্রেনী নির্বিশেষেদেশের প্রতিটি থানায় সকল নাগরিকের সমান আইনগত অধিকার লাভের সুযোগ আছে।

৩। থানায় আগত সাহায্য প্রার্থীদৈর আগে আসা ব্যক্তিকে আগে সেবা প্রদান করা হয়ে থাকে।  

৪। থানার সাহায্যপ্রার্থী সকল ব্যক্তিকে থানা পুলিশ সম্মান প্রদর্শন করবে এবং সম্মান সূচক সম্বোধন করবে।

৫। থানার জিডি করতে আসা ব্যক্তি আবেদনকৃত বিষয়ে ডিউটি অফিসার সর্বাত্মকসহযোগিতা প্রদান করবে এবং আবেদনের দ্বিতীয় কপিতে জিডি নম্বর,তারিখ এবংসংশ্লিষ্ট অফিসারের স্বাক্ষর ও সীল মোহর সহ তাহা আবেদনকারীকে প্রদান করতেহবে। বর্ণিত জিডি সংক্রান্ত বিষয়ে যথাশ্রীঘ্র সম্ভব ব্যবস্থা গ্রহন করা হবেএবং গৃহীত ব্যবস্থা পূনরায় আবেদনকারীকে অবহিত করা হয়ে থাকে

৬। থানায় মামলা করতে আসা ব্যক্তির মৌখিক/লিখিত বক্তব্য ভারপ্রাপ্তকর্মকর্তা কর্তৃক এজাহারভূক্ত করবে এবং আগত ব্যক্তিকে মামলা নম্বর,তারিখ ওধারা এবং তদন্তকারী অফিসারের নাম ও পদবী অবহিত করবে।

৭।মহিলা আসামী/ভিকটিমকে যথাসম্ভব মহিলা পুলিশের মাধ্যমে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন।

৮।দেশের কিছু সংখ্যক থানায় ওয়ানষ্টপ ডেলিভারী সার্ভিস চালু করা হইয়াছে। পর্যায়ক্রমে উক্ত ওয়ানষ্টপ ডেলিভারী সার্ভিস সেন্টার দেশের সকল থানায়প্রবর্তন করা হবে।

৯।আহত মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ভিকটিমকে সার্বিক সহযোগিতার জন্য দেশের সকল থানায় পর্যায়ক্রমে ভিকটিম সাপোর্ট ইউনিট চালু করা হবে।

১০। পাসপোর্ট/ভেরিফিকেশন/আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স ইত্যাদি বিষয়ে সকলঅনুসন্ধান প্রাপ্তির ০৩ দিনের মধ্যে তদন্ত সম্পন্ন করে থানা হতে সংশ্লিষ্টইউনিটে প্রতিবেদন প্রেরন করা হইবে।